GDP এর পূর্ণরূপ কী ? কীভাবে GDP নির্ণয় করা হয়? GDP এর বিস্তারিত আলোচনা

Ad

GDP এর পূর্ণরূপ কী ? কীভাবে GDP নির্ণয় করা হয়? GDP এর বিস্তারিত আলোচনা



GDP এর পূর্ণরূপ হচ্ছে Gross Domestic Product একটি দেশের অভ্যন্তরে এক বছরে চূড়ান্তভাবে উৎপাদিত দ্রব্য ও সেবার বাজারে সামষ্টিক মূল্যই হচ্ছে মোট দেশজ উৎপাদন (জিডিপি বা গ্রোস ডমেস্টিক প্রডাক্ট)। 

GDP নির্ণয় করা খুব সহজ 

GDP=C+I+G+(X-M)
 এখানে C হচ্ছে Consumption 
I হচ্ছে  Investment 
G হচ্ছে  Government Expenditure
 X হচ্ছে  Export 
M হচ্ছে  Import

আরো সহজ ভাবে সূত্রটি হচ্ছে 


জিডিপি = ভোগ + বিনিয়োগ + সরকারী ব্যয় + (রপ্তানি − আমদানি)

ধরি একটি দেশের ভোগ ব্যয় ২০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ ১০০ কোটি টাকা সরকারি ব্যয় ৫০ কোটি টাকা রপ্তানি ২০ কোটি টাকা আমদানি ১০ কোটি টাকা তাহলে সে দেশটির জিডিপি হবে 


জিডিপি=ভোগ + বিনিয়োগ + সরকারী ব্যয় + (রপ্তানি − আমদানি)
   =২০০+১০০+৫০+(২০-১০)
   =২০০+১০০+৫০+১০
   =৩৬০ কোটি টাকা
তাহলে দেশটির জিডিপি ৩৬০ কোটি টাকা


আগের বছরের তুলনায় পরের বছরে উৎপাদন যে হারে বাড়ে সেটি হচ্ছে জিডিপির প্রবৃদ্ধি। জিডিপি একটি দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের প্রধান সূচক। ১৯৮০ সাল পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রে মোট জাতীয় উৎপাদন (জিএনপি) অর্থনীতি পরিমাপক হিসেবে ব্যবহৃত হতো। তবে জিডিপি ও জিএনপির মধ্যে কিছু মৌলিক পার্থক্য রয়েছে। জিডিপি একটি এলাকা নিয়ে চিন্তা করে যেখানে পণ্য বা সেবা উৎপাদিত হয়। অন্যদিকে জিএনপি একটি অঞ্চলের উদ্ভূত আয় নিয়ে চিন্তা করে।

মূলত তিনটি খাতের সমষ্টি জিডিপি। বাংলাদেশে খাতগুলো হল কৃষি, শিল্প ও সেবা। জিডিপিতে সবচেয়ে বেশি অবদান সেবা খাতের। গত অর্থবছরে ৫৩ দশমিক ৬২ শতাংশ। শিল্পের ৩০ দশমিক ৪২ শতাংশ এবং কৃষি খাতের অবদান ১৫ দশমিক ৯৬ শতাংশ। জিডিপি হিসাব করতে গিয়ে ১৫টি খাত ও উপখাতের বাজারমূল্য হিসাব করা হয়।

বাৎসরিক হিসাবে জিডিপির শতকরা হিসাবে বৃদ্ধি প্রবৃদ্ধি বলা হয়। গত ২০১৪-১৫ অর্থবছরে বাজার মূল্যে বাংলাদেশের জিডিপির আকার ১৫ লাখ ১৩ হাজার ৬০০ কোটি টাকা। ২০০৫-০৬ ভিত্তি ধরে প্রবৃদ্ধি হয়েছে ৬ দশমিক ৫১ শতাংশ। বাংলাদেশে প্রায় এক দশক ধরে জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৬ শতাংশের ওপরে রয়েছে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য