বিলাসিতা

Ad

বিলাসিতা




বিলাসিতা


মোঃ সুমনুল্লাহ সুমন 

হে মাঘের কুহেলী মিশ্রিত শীত 
তুমি কি জানো ? 
তোমায় আগমনে কতগুলি জীর্ণ মানুষের চেষ্টা ব্যর্থ
কতটা শীতলপীড়া তোমার কনকনে দংশনে! 
 স্টেশনের ছেলেটির কথা একবার ভাবো তো 
অযত্ন-অনাহার আর বিবস্ত্র অবস্তায় সেই আম গাছটার নীচে 
কিভাবে শীত নিবারন করবে? 
যখন সে হালকা খড়কুটো জ্বালিয়ে 
শীতল হাত-পা এলিয়ে দেবে উওপ্ত শিখার উপর, 
ঠিক তখনি মাঘের দক্ষিনা হাওয়া এসে 
গুড়িয়ে দেবে অসামান্য প্রষ্টার গড়ে উঠা রাজ্য। 
বেঞ্চে উপর শুয়ে হয়ত থরথর কাপবে। 
একটা নোংরা ছেড়া শার্ট পড়ে হয়ত শীত নিবারনের ব্রতী হবে, 
কিন্তু তোমার কুহেলী মিশ্রিত তুষারপাত যে 
ভিজিয়ে দেবে তার সামান্য এই বিলাসিতা।
পরদিন সকালে হয়ত ভোরের সূর্যটা,
তার উদ্দীপ্ত রাগ নিয়ে গর্জে উঠবে পূর্ব গগণে,
সেই উলঙ্গ ছেলেটাও তার কিরন গায়ে মেখে নিবে,
কিন্তু পুবাল হিমবাহ  যে কেড়ে নেবে তার হাস্যোজ্জল বদন।
তুমি জানো কি হে সূর্যি মামা,
কনকনে শীতের চেয়েও স্বার্থপর এই শহরের মানুষগুলো,
মাঘের রাগান্বিত স্বরের সামান্য ধমকে তুমি তাপ দাও না,
কিন্তু এরা বিলাসিতায় যাপিছে জীবন শুধু সেই ছেলেটিই চোখে পড়ে না।
হে সূর্যি মামা,
তুমি সময়,সুযোগ পেলে ঐ ছেলেটাকে সামান্য কিরণ ও তাপ দিও,
বিনিময়ে তুমি না হয় ভাপার দাওয়াত নিও....

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য